×
Recipes

এইভাবে একদিন বানিয়ে দেখুন দুর্দান্ত স্বাদের আলু পালং, ভাত, রুটি কিংবা পরোটা সবের সাথেই জাস্ট জমে যাবে

আলু খেতে ভালবাসে না এমন মনে হয় কেউই নেই। আর পালংশাক খাওয়া স্বাস্থ্যের পক্ষে খুবই ভালো। যদি এই দুটো জিনিসকে একসঙ্গে রান্না করা যায়? আসুন দেখে নিই আলু পালক বা পালং শাক দিয়ে আলুর দম কিভাবে বানাতে হবে।

উপকরণ :

ADVERTISEMENT

আলু, পালংশাক, তেল, গোটা গরমমসলা, স্টার এনিস, জৈত্রি, শা জিরে, কাশ্মিরি লঙ্কাগুঁড়ো, হলুদগুঁড়ো, জিরেগুঁড়ো, ধনেগুঁড়ো, ধনেপাতা, আদা, কাঁচালঙ্কা, টমেটো, নুন, শাহি গরমমসলা গুঁড়ো, ফ্রেশ ক্রিম, কসুরি মেথি।

প্রণালী :

স্টেপ ১:

১ আঁটি পালংশাক ধুয়ে রাখুন। ১ ইঞ্চি আদা, ১ টা টমেটো কুচিয়ে রাখুন। ৬-৭ টা আলু সেদ্ধ করে টুকরো করে নিন।

স্টেপ ২:

তেল গরম করে তাতে ১ চামচ গোটা গরমমসলা, ২ টা স্টার এনিস, অল্প জৈত্রি, ১ চামচ শা জিরে ফোড়ন দিন। গন্ধ বেরলে টমেটো কুচি, আদা, চেরা কাঁচালঙ্কা দিন। কষিয়ে নিয়ে পালংশাক, ধনেপাতা, স্বাদমতো নুন দিয়ে ভেজে নিন। জল ছাড়লে আঁচ বন্ধ করে দিন। পুরোটা ঠান্ডা করে বেটে নিন।

স্টেপ ৩:

কড়ায় তেল গরম করে সেদ্ধ আলুর টুকরো নুন দিয়ে ভেজে নিন।

স্টেপ ৪:

ওই তেলেই বেটে রাখা পালংশাক দিন। ভালো করে কষিয়ে নিন। এতে ১/২ চামচ কাশ্মিরি লঙ্কাগুঁড়ো, ১/২ চামচ হলুদগুঁড়ো, ১ চামচ জিরেগুঁড়ো, ১/২ চামচ ধনেগুঁড়ো, ১/৪ চামচ শাহি গরমমসলা গুঁড়ো দিন। আবারও কষিয়ে নিন।

স্টেপ ৫:

মশলা কষানো হলে আগে ভেজে রাখা আলুর টুকরো দিন। অল্প চিনি আর ৩ চামচ ফ্রেশ ক্রিম দিয়ে মিশিয়ে নিন। কিছুক্ষণ নাড়াচাড়া করুন। ওপর থেকে কসুরি মেথি দিয়ে নামিয়ে নিন।

রুটি, লুচি, পরোটা বা ভাতের সঙ্গে পরিবেশন করুন
আলু পালক বা পালংশাকের এই রেসিপি।

দেখে নিন ভিডিও-