×
Lifestyle

লবঙ্গের ১০ টি অবাক করা উপকারিতা সম্পর্কে জেনে নিন

লবঙ্গ এই উপাদানটির সাথে আমরা সবাই পরিচিত। কমবেশি এর উপকার আমরা সবাই জানি। এরই সাথে রান্নায় এর ব্যাবহার সম্পর্কেও জানা রয়েছে। এই লবঙ্গ খুবই পরিচিত একটি মশলা। অনেকেই ফোরণ হিসেবে ব্যবহার করে থাকে। আবার গরম মশলার সাথেও থাকে যা রান্নার স্বাদ বাড়ায়। লবঙ্গতে ১০-১৫ শতাংশ করে ক্লোভ তেল ও টাইটার্ড প্যানিক অ্যাসিড থাকে যে কারণে একটি খেতে ঝাঁঝালো হয়।

লবঙ্গ লং নামেও পরিচিত। রান্নায় স্বাদ আনে ঝাঁঝ লবঙ্গ। গলা খুসখুস করলে বাড়ির বড়রা বলেন, মুখে লবঙ্গ রাখতে। ভারতীয় উপমহাদেশে রান্নার মশলা হিসেবে এর ব্যবহার বেশি। তবে গবেষণায় বারবার প্রমাণিত, রোগ নিরাময়ে লবঙ্গের কার্যকারিতা রয়েছে। জেনে নিন লবঙ্গের বিশেষ কিছু গুণ সম্পর্কে।

ADVERTISEMENT

দাঁত ব্যথা করলে কয়েকটি লবঙ্গ থেতো করে ব্যথার জায়গায় দিয়ে রাখুন। দাঁত ব্যথার উপশম পাবেন। প্রায় টুথপেস্ট কোম্পানি এই কারণেই টুথপেস্টে লবঙ্গের ব্যাবহার করা হয়েছে এই দাবি করে থাকে।

হাঁটু কিংবা পিঠের হাড়ের জয়েন্টে ব্যথা হলে কয়েকটি লবঙ্গ নিয়ে তাওয়ায় গরম করুন। এরপর একটি পুটলিতে করে বেঁধে নিন সেই লবঙ্গগুলি। গরম থাকতে থাকতেই ব্যথার জায়গায় সেঁক দিন। ব্যথা ঠিক হয়ে যাবে।

বমি ভাব দূর করতে গুঁড়ো লবঙ্গের সাথে মধু মিশিয়ে খেলে ঠিক হয়ে যায়।

সাধারণ ঠাণ্ডা হোক কিংবা এজমা, সাইনাসাইটিস ইত্যাদি সমস্যায় লবঙ্গ চা খেলে উপশম পাওয়া যায়। দিনে ৩-৪ বার লবঙ্গ চা খেলে খুব ভালো উপশম পাবেন।

মাথা ব্যাথা করলে কয়েক ফোঁটা লবঙ্গ তেল একটি কাপড়ে কিংবা টিসুতে করে কপালে দিয়ে রাখুন। দেখবে ১০-১৫ মিনিট পর মাথা ব্যাথা চলে গেছে।

মুখের দুর্গন্ধ দূর করতেও লবঙ্গের অবদান অতুলনীয়। কয়েকটি লবঙ্গ মুখে ফেলে চিবিয়ে নিলেই আপনার নিশ্বাস হয়ে উঠবে তরতাজা।

ব্রণ দূর করতে খুব কার্যকরী উপাদান হলো লবঙ্গ। তাজা মধুর সাথে গুঁড়ো লবঙ্গ মিশিয়ে ব্রণের উপরে লাগিয়ে নিন। ব্রণ দূর হয়ে যাবে।

যাদের চুল পরার সমস্যা রয়েছে তারা যদি তেলের মধ্যে লবঙ্গ মিশিয়ে মাখেন তাহলে তা চলে যাবে। এরই সাথে চুল ঘন ও হয়ে উঠবে।

ADVERTISEMENT

Related Articles