×
Lifestyle

আর নয় বাজারের রাসায়নিক উপাদান! এই তিনটি জিনিসেই চুল হবে কালো ও স্বাস্থ্যবান, রইল বিস্তারিত

বয়সের আগে চুল পেঁকে যাক এমনটা কোনো মানুষই চান না। তবে চাওয়া না চাওয়া যে মানুষের হাতে নেই সেটা মেনে নেওয়ার নামই জীবন। শরীরে “মেলানিন” নামক এক প্রকার হরমোনের কার্যক্ষমতা কমে যাওয়ার ফলে চুল পাকতে শুরু করে। চুল কালো করার জন্য আমরা বাজারের বিভিন্ন হেয়ার কালারের উপরেই ভরসা রাখি। রাসায়নিক উপাদান দিয়ে তৈরী এই কালারগুলি আপনার চুলের জন্য খুবই ক্ষতিকর।

ADVERTISEMENT

তাই আজ আপনাদের বাড়িতে ঘরোয়া উপায়ে চুল কালো করার বিভিন্ন পক্রিয়া জানাবো এই প্রতিবেদনের মধ্যে দিয়ে। চুল হবে কালো ও স্বাস্থ্যবান। তাহলে চলুন দেখে নেওয়া যাক সেই সেই উপায় গুলি –

১) মেহেন্দি পাতার কামাল :
প্রথমে পরিমান মতো মেহেন্দি পাতা নিয়ে ভালো করে বেটে নিন। এর মধ্যে এবার একে একে হরিতকী গুঁড়ো , আমলকি গুঁড়ো, নারকেল তেল, ক্যাস্টর অয়েল এবং অলিভ অয়েল মিশিয়ে দিন। খুব ভালো করে প্রতিটা জিনিস মিশিয়ে নেবেন। এবার একটা বাটিতে এই মিশ্রনটি ভালো করে ফুটিয়ে নিন। ঠান্ডা করে গ্যাস থেকে নামিয়ে নিয়ে নিজের স্ক্যাল্পে খুব ভালো করে লাগান। এক ঘন্টা রেখে হারবাল শ্যাম্পু দিয়ে মাথা ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে দুদিন যদি এমনটা করতে পারেন তাহলে আপনার পাকা চুল হয়ে উঠবে সম্পূর্ণ কালো।

২) পেঁয়াজের ক্ষমতা :
একটি বড় পেঁয়াজ কে খোসা ছাড়িয়ে টুকরো টুকরো করে কেটে নিন। টুকরো পেঁয়াজ গুলিকে মিক্সিতে ভালো করে পেস্ট করে নিন। ছাঁকনির সাহায্যে পেঁয়াজের রস সেখান থেকে ছেঁকে নিন। এবার সেই রসের মধ্যে একটা বড়ো চামচের এক চামচ মেশান লেবুর রস। এবার ভালো করে চুলের গোড়ায় লাগান ও সম্পূর্ণ শুকিয়ে যাওয়া পর্যন্ত অপেক্ষা করুন। তারপরে শ্যাম্পু দিয়ে চুল ধুয়ে ফেলুন। সপ্তাহে যদি তিন দিন এমন করতে পারেন তাহলেই কিন্তু আপনার চুল কাল হয়ে যাবে।

৩) কেশুতি পাতার চমক :
পরিমাণ মতো কেশুতি পাতা বেটে একটি পেস্ট তৈরি করে নিন। এবার সেই পেস্টের থেকে দুই চামচ নিয়ে নিন। তার মধ্যে মেথি গুঁড়ো, ডিমের কুসুম, টক দই, নারকেল তেল সমপরিমানে মিশিয়ে নিন। প্যাকটি তৈরী হয়ে গেলে এবার ভালো করে চুলে লাগান। ঘন্টা খানেক রেখে রেখে ধুয়ে ফেলুন হারবাল শ্যাম্পু ব্যবহার করে তাহলেই দেখবেন আপনার চুল কেমন কালো হয়ে যাবে। অবশ্যই সপ্তাহে একদিন এই প্যাকটি ব্যবহার করবেন।