Entertainment

চলন্ত গাড়িতে বসে ‘তেরি মেরি কাহানি’ গাইছে রানাঘাটের লতাকন্ঠী Ranu Mondal, তুমুল ভাইরাল ভিডিও

সোশ্যাল মিডিয়ার দৌলতে ভাইরাল হয়েছিলেন রানাঘাটের স্টেশনের ভবঘুরে রাণু মণ্ডল(Ranu Mondal)। রাতারাতি পৌঁছে গিয়েছিলেন তিনি লাইমলাইটের কেন্দ্রবিন্দুতে। স্টেশনের প্ল্যাটফর্মে লতার গান গেয়ে রাতারাতি স্টার হয়ে যান তিনি। এরপর থেকেই বিনোদনের শিরোনামে উঠে এসেছিল রাণু কী করছেন, কী পড়ছেন, কী গাইছেন, তাঁর প্রতিটি খবরই! এরপরই রাণু পাড়ি দেন বলিউডে। তিনি গান গাওয়ার সুযোগ পেয়েছিলেন হীমেশ রেশামিয়ার ‘হ্যাপি হার্ডি অ্যান্ড হীর’ ছবিতে। প্রতিটি গান সুপার-ডুপার হিট!

তারপর আর পিছন ফিরে দেখতে হয়নি রাণুকে। পুজোর থিম সং, দেশে-বিদেশে শো, তারকাদের সঙ্গে ওঠা-বসা, অব্যাহত থাকে রাণুর জয়যাত্রা। এমনকি বলিউড সুপারস্টাররা তাকে সুযোগ করে দিয়েছিলেন বিভিন্ন প্লাটফর্মে গান গাওয়ার, শোনা গিয়েছিল কোনও এক সুপারস্টার তাকে মুম্বইতে বসবাস করার জন্য ফ্ল্যাটও কিনে দিয়েছিলেন। হীমেশ রেশামিয়ার(Himesh Reshammiya) সঙ্গে গান গেয়ে তিনি রাতারাতি হয়ে গিয়েছিলেন জনপ্রিয় গায়িকা লতা মঙ্গেশকরের দ্বিতীয় পরছায়ি।

খবরের শীর্ষে পৌঁছনোর পরই তাঁর অহংকার প্রকাশ্যে এসেছিল আম জনতার। একে একে নানারকমের জল্পনার শিকার হয়েছিলেন রানু। অভিযোগ উঠেছিল, রাতারাতি স্টার হয়ে গিয়ে নাকি বদলে গিয়েছেন রাণু মণ্ডল! নিন্দুকেরা রীতিমতো বলতে শুরু করেছিল তাঁর ফ্যানেরাও আজকাল তাঁকে আর তেমন আদল দেয় না! এই অবস্থায় হঠাৎই তাঁর ছন্দপতন হয়, এবং তিনি চলে যান পুরোনো রূপে। বলিউড থেকে আর কোনও ডাক আসেনি তাঁর মহামারীর কারণে। হাতে কোনও কাজ না থাকায় তিনি ভিক্ষারিতে পরিনত হয়েছিলেন তিনি। তবে এখন তাঁর গান অবশ্য ইউটিউবের দৌলতে ভালোই ভাইরাল হচ্ছে।

সম্প্রতি আলোর উৎসবের আবহে ফের ভাইরাল হয়েছেন রানু মন্ডল(Ranu Monda)। ভাইরাল এই ভিডিওতে দেখা যাচ্ছে একটি চারচাকা গাড়িতে বসেই নিজের মনে গুনগুন করে গান গাইছেন তিনি, তাও আবার হিমেশ রেশমিয়ার সঙ্গে গাওয়া জনপ্রিয় গান ‘তেরি মেরি কাহানি’। সেখানে গাড়ির মধ্যেও রানু মন্ডলের তেরি মেরি গানটি বাজছিলো। সেই গানের সঙ্গেই গলা মেলাচ্ছিলেন তিনি। তার ওপর মানুষ যতই রাগ করুক না কেন তোর ঈশ্বর প্রদত্ত কণ্ঠস্বর মুগ্ধ সবাই। তাইতো তার গান ফের ভাইরাল হয়েছে সোশ‍্যাল মিডিয়ায়।

Related Articles

Back to top button