×
Entertainment

Mithai: সুখে দুঃখে মিষ্টি মুখে ২ বছর পার করলো মিঠাই, রইলো পুরনো কিছু মূহুর্তের ছবি ও ভিডিও

দেখতে দেখতে দুবছর পার করলো মিঠাই। এই সিরিয়ালের জনপ্রিয়তা নিয়ে নতুন করে বলার কিছু নেই। বাংলা টেলিভিশনে (Television) জনপ্রিয়তার শীর্ষে থাকা ধারাবাহিক হল ‘মিঠাই’ (Mithai)। সপ্তাহের পর সপ্তাহ ধরে টিআরপি তালিকায় এই সিরিয়াল থেকেছে প্রথম স্থানে। কিন্তু বর্তমানে টিআরপি তালিকায় তেমন একটা জায়গা করতে পারছেনা। আর তাই প্রাইম টাইমের বদলে সন্ধ্যের স্লটে দেখানো হচ্ছে এই ধারাবাহিক। কিন্তু তাই বলে জনপ্রিয়তা কিন্তু একেবারেই কমেনি।

Mithai: সুখে দুঃখে মিষ্টি মুখে ২ বছর পার করলো মিঠাই, রইলো পুরনো কিছু মূহুর্তের ছবি ও ভিডিও -

বিশেষত মিঠাই-সিডের (Mithi-Sid) দুস্টু মিষ্টি খুনসুটিতে ভরা জীবন কাহিনী দেখতে একটা সময় ভিড় জমাতো ভক্তরা। গল্পের নায়িকার নামই মিঠাই। নামের সঙ্গে একেবারে পরিপূর্ণ তাঁর অভিনয়। যেমন সুন্দর সে মিষ্টি বানায় তেমনি মিষ্টি তাঁর কথা। তাঁর হাতের মনোহরা খেয়ে প্রশংসায় পঞ্চমুখ হয়নি এমন মানুষ বোধহয় নেই।

Mithai: সুখে দুঃখে মিষ্টি মুখে ২ বছর পার করলো মিঠাই, রইলো পুরনো কিছু মূহুর্তের ছবি ও ভিডিও -

আর অন্যদিকে ৫০ বছর ধরে মিষ্টির কারবার করা মোদক পরিবারের ছোট ছেলে হল সিদ্ধার্থ অর্থাৎ সিড (Sid)। মিঠাই যতটাই প্রাণোচ্ছল, হাসিখুশি সিড ততটাই গোমড়ামুখো, রাগী। অল্প কয়েকদিনের মধ্যেই বেশ জনপ্রিয়তা অর্জন করেছিল এই সিরিয়াল। একটি একান্নবর্তী পরিবারের সুখ-দুঃখ, ভালোলাগা-মন্দ লাগা এমনকি ছোট ছোট কথার গুরুত্ব নিয়ে গড়ে উঠেছে এই সিরিয়াল। আর তার পাশেই রয়েছে পরিবারের সবচেয়ে বড় দুর্বল জায়গা তাঁদের মিষ্টির দোকান।

Mithai: সুখে দুঃখে মিষ্টি মুখে ২ বছর পার করলো মিঠাই, রইলো পুরনো কিছু মূহুর্তের ছবি ও ভিডিও -

আর মোদক বাড়ির ছোট ছেলের সঙ্গে মিঠাইয়ের বিয়ে হওয়ার পর থেকে সবকিছুর সঙ্গে যোগ হয়েছে তাঁদের দুস্টু-মিষ্টি খুনসুটিও। প্রথমদিকে সিড যতটাই কঠিন ও চাপা স্বভাবের ছিল পরের দিকে সে ততটাই খোলামেলা হয়েছিল। এমনকি নিজের চাকরি ছেড়ে শুধুমাত্র মিঠাইয়ের কথায় যোগ দিয়েছিল মোদক পরিবারের মিষ্টির ব্যবসায়। আর তাতে ব্যবসা একেবারে ফুলে ফেঁপে উঠেছিল।

Mithai: সুখে দুঃখে মিষ্টি মুখে ২ বছর পার করলো মিঠাই, রইলো পুরনো কিছু মূহুর্তের ছবি ও ভিডিও -

শুধু ভালো স্বামী-স্ত্রী নয় একটা সময় তারা বাবা-মা হয়ে উঠে। তাদের কোল আলো করে আসে তাদের সন্তান। কিন্তু এসব কিছুই সহ্য হয়নি আগরওয়ালদের। আর তাইতো প্ল্যান করে কারখানায় আগুন ধরায়। আর সেই আগুনে পুড়ে মৃত্যু হয় মিঠাইয়ের। আর তারপরই আবারও আগের মতোন নিজেকে কড়া নিয়মে বেঁধে ফেলে সিড। মিঠাইয়ের খুনিদের ধরতে যোগ দেয় পুলিশে। আর ওদিকে সিড ও মিঠাইয়ের ছেলে শাক্যও বড় হতে থাকে। এমনকি দুস্টুও হয়।

Mithai: সুখে দুঃখে মিষ্টি মুখে ২ বছর পার করলো মিঠাই, রইলো পুরনো কিছু মূহুর্তের ছবি ও ভিডিও -

আর তাই তাকে দেখভাল করতে এমনকি পড়াশোনা শেখাতে মনোহরায় হাজির হয় মিঠি। যাকে কিনা একেবারে মিঠাইয়ের মতো দেখতে। বর্তমানে মিঠি ও শাক্যকে নিয়ে এগিয়ে চলেছে গল্পের ট্র্যাক। এবার শুধু দেখার পালা মিঠি আসলে মিঠাই কিনা। আগামী দিনে কি হতে চলেছে গল্পে তা জানতে হলে দেখতে হবে মিঠাই।