×
Entertainment

সালোয়ার কামিজে সিদ্ধি বিনায়ক মন্দিরে কাজল কন্যা নায়সা, ‘এসব মানায় না দুবাই চলে যাও’, কটাক্ষ নেটিজেনদের

নিউ ইয়ার পার্টি ঘিরে নেটিজেনদের রক্ত চক্ষুর সামনে এসেছিলেন অজয়-কাজল কন্যা নাইসা দেবগন (Nysa Devgan)। খোলামেলা পোশাকে দুবাইয়ের বর্ষবরণ রাতে পাব থেকে বন্ধুদের সাথে বেরোতে দেখা গিয়েছিলো। সেখান থেকেই বিভিন্ন রকম চর্চা শুরু হয়। তবে দিন কয়েক যেতে না যেতেই কার্যত নাইসা সম্পূর্ণ বদলে গেল। মায়ের সাথে সিদ্ধিবিনায়ক মন্দিরে পুজো দিতে দেখা গেল তাকে।

সালোয়ার কামিজে সিদ্ধি বিনায়ক মন্দিরে কাজল কন্যা নায়সা, 'এসব মানায় না দুবাই চলে যাও', কটাক্ষ নেটিজেনদের -

এদিন তারা মন্দির চত্বরে আসা মাত্রই পাপারাজ্জিরা ঘিরে ধরেন। কাজলের (Kajol) পরনে ফ্লোরাল প্রিন্ট কুর্তি ও পাজামা দেখা গেল। তবে সবাইকে চমকে সাদা রঙের সালোয়ার কামিজে সহজ সরল উপস্থিতি ছিল কাজল কন্যার। তাঁর এই রূপ দেখে অবাক সাধারণ মানুষ। সেই রাত আর আজকের মধ্যে পার্থক্য খুঁজতে লেগে পরেছেন সকলে। যে কারণে ব্যাপক হারে ট্রোলিং ও বিরূপ মন্তব্যের শিকার হয়েছেন নাইসা।

সালোয়ার কামিজে সিদ্ধি বিনায়ক মন্দিরে কাজল কন্যা নায়সা, 'এসব মানায় না দুবাই চলে যাও', কটাক্ষ নেটিজেনদের -

কেউ লিখেছেন -‘হঠাৎ কি হলো! পাবলিসিটি দরকার?’ তো অন্য জন -‘এসব মানায় না দুবাই চলে যাও’। তবে নাইসার অনুরাগী কম নেই যে কারণে তাকে সাপোর্ট করে বহু মানুষ বলেছেন -‘আমি বুঝতে পারছি না ট্রোল করার কারণ টা কি? মানুষ পাব বা পার্টি করতে ওয়েস্টার্ন পোশাকই পরে যায়। তার মানে এই নয় সে ধার্মিক নন কিংবা মন্দিরে যান না’। তর্কে বিতর্কে সরগরম এখন নেটপাড়া।

সালোয়ার কামিজে সিদ্ধি বিনায়ক মন্দিরে কাজল কন্যা নায়সা, 'এসব মানায় না দুবাই চলে যাও', কটাক্ষ নেটিজেনদের -

নাইসা তার বন্ধু Aryan Khan, Orhan Awatramani, ও Ahan Shetty সঙ্গে বর্ষবরণ পার্টি করেছিলেন। ১৯ বছর বয়সী নাইসা এখনও অভিনয়ে পা রাখেন নি। তবে তাঁর আগেই কার্যত তিনি এক প্রকার হিট কনটেন্ট বলা যায়। বাড়ি থেকে বের হলেই ক্যামেরা তার পিছনে থাকে। এর আগেও নাইসার ঠাকুরদার মৃত্যুর পরদিন সেলুনে যাওয়ার জন্য ব্যাপক মাত্রায় ট্রোল হতে হয়েছিল তাকে।